আজ বৃহস্পতিবার,৬ই মে, ২০২১ ইং, ২৩শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে রমযান, ১৪৪২ হিজরী
>> জমি সংক্রান্ত ব্যাপারে পূর্বের শত্রুতার জের ধরে হত্যা করার চেষ্টায় আটক-১ >> ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে শিল্প-কারখানায় ৩ দিনের বেশি ছুটি নয় >> নাটোরের বড়াইগ্রামে আগুনে পুড়ে হয়েছে ছাই ক্ষতি হলো প্রায় তিন লক্ষ টাকার মালামাল, >> ফেনী জেলায় শ্রেষ্ঠ অস্ত্র উদ্ধারকারী পুলিশ অফিসার হিসেবে পুরস্কৃত হলেন এসআই মোঃ রাশেদুল হক (রাশেদ) >> অধিনায়ক জাকির হোসেন হলেন কাবাডি দলের গর্ব >> মহানগর সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগের দ্বি-বার্ষিক কার্যকরি কমিটি গঠন উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত >> সামাজিক দূরত্ব-শাররিক দূরত্ব কোনটিই তোয়াক্কা করছে না এই সোনার বাংলার আমজনতারা..” >> জনগণ সামাজিক দুরত্ব ও শারীরিক দুরত্ব কিছুই মানছে না। >> জনগণ সামাজিক দুরত্ব ও শারীরিক দুরত্ব কোনটাই মানছেনা। >> শাহ আমানত সেতু সড়কের উপর থেকে মাইক্রোবাস জব্দ ও ১৫ লক্ষ টাকা মূল্যের ৪,৯৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ আটক- ২     

ওসি প্রদীপের ইয়াবা বাণিজ্য জেনে যাওয়ায় মেজর সিনহাকে হত্যা: র‌্যাব

ডিসেম্বর ১৩, ২০২০,৯:১০ অপরাহ্ণ

 
Spread the love

বিডি নিউজ টিভি ২৪ডট কম: মোঃ সোহাগ হোসেন : ঢাকা : দেশব্যাপী ব্যাপক আলোচিত টেকনাফ থানার সেই সময়ের ওসি প্রদীপ কুমার দাসের ইয়াবা বাণিজ্যের কথা জেনে যাওয়ায় মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খানকে হত্যা করা হয়েছে।

রোববার (১৩ ডিসেম্বর) দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ।

তিনি জানান, হত্যার পর বাহারছড়া ক্যাম্পের পরিদর্শক লিয়াকত আলীসহ বাকি আসামিদের নিয়ে মাদক উদ্ধারের নাটক সাজান ওসি প্রদীপ।

লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ বলেন, সিনহা হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ। সেখানে ওসি প্রদীপ অস্ত্র ও নির্যাতনের সাম্রাজ্য গড়ে তুলেছিলেন। সরকারি অস্ত্র ব‌্যবহার করে অনৈতিক কাজ করেছেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, ঘটনার সাক্ষী, আলামত, আসামিদের জবানবন্দির মাধ্যমে বস্তুনিষ্ঠভাবে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নিশ্চিত হয়েছেন যে, এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। এই হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী টেকনাফ থানার তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা প্রদীপ কুমার দাস। হত্যাকাণ্ডকে ধামাচাপা দেয়ার জন্য এবং অন্যখাতে প্রবাহিত করার জন্য তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। প্রদীপ কুমার দাসের প্রত্যক্ষ ষড়যন্ত্রে অংশগ্রহণ করেন অপর আসামি এসআই লিয়াকত আলী, মো. নুরুল আমিন, পুলিশের সোর্স মুহাম্মদ আয়াজ ও মোহাম্মদ নিজামউদ্দিন। আবার লিয়াকত আলীকে সহযোগিতা করেন আরেক পুলিশ সদস্য নন্দ দুলাল। পাশাপাশি এপিবিএনর তিন সদস্যদের সহায়তায় এ হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়। পরবর্তীতে ওই ফাঁড়ির আরও পুলিশ সদস্য সিনহার মৃত্যু নিশ্চিত করতে এবং ঘটনা প্রবাহের সঙ্গে জড়িত ছিলেন।

এদিন সিনহা হত্যায় ওসি প্রদীপ কুমার দাসসহ ১৫ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট জমা দেয়া হয়েছে। কক্সবাজারের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রতিবেদনটি দাখিল করেন র‍্যাব-১৫ এর কর্মকর্তা সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মো. খায়রুল আলম।

অভিযুক্তদের মধ্যে ১৪ জন কারাগারে এবং একজন পলাতক। দীর্ঘ চার মাসেরও বেশি সময় পর আলোচিত মামলাটি তদন্ত শেষে প্রতিবেদন জমা দেয়া হলো আজ।

 

Chairman

Md. Riadul Islam (Afzal)
Chairman
www.bdnewstv24.com
 

সর্বশেষ সংবাদ

 

সারাবাংলা

 

 

Site Developed By: Md. Shohag Hossain