পদ্মার সেতুর অগ্রগতি দেখে এলেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক,বিডিনিউজটিভিটুয়েন্টিফোরডটকম:

পদ্মা সেতুর লৌহজংয়ের মাওয়া প্রধান অংশে সেতুর নামফলক উন্মোচন সহ কয়েকটি নতুন প্রকল্পের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর তিনি মাওয়া টোল প্লাজা সংলগ্ন গোল চত্বরে সুধী সমাবেশে বক্তব্য রাখেন।

প্রধানমন্ত্রী হেলিকপ্টারে করে রোববার বেলা ১১টায় মুন্সীগঞ্জের মাওয়ায় পদ্মা সেতুর সার্ভিস এরিয়া-১ এ অবতরণ করেন।

এরপর বেলা ১১টা ১০ মিনিটে পদ্মা সেতুর নামফলক উদ্বোধন করেন। সে সময় ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের চার লেনে উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করেন। এরপর পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্প এবং মূল নদী শাসন কাজ সংলগ্ন স্থায়ী নদী তীরের প্রতিরক্ষামূলক কাজের উদ্বোধন করেন। এসময় পদ্মা সেতুর কাজ ৬০ ভাগ সম্পন্নের ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী।

বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মাওয়া টোল প্লাজা সংলগ্ন গোল চত্বরে সুধী সমাবেশে বক্তব্য রাখেন। এরপর সাড়ে ১২টায় সুধী সমাবেশে বক্তব্য শেষ করে মাদারীপুরের উদ্দেশ্যে গমন করেন।

সেখান থোকে শরীয়তপুরের জাজিরায় পদ্মা সেতু প্রকল্পে গমন করবেন। দুপুরের পর পদ্মা সেতুর জাজিরা অংশে নামফলক ও কয়েকটি প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন তিনি।

‘কারাগারে আদালত স্থানান্তর সংবিধান বিরোধী’

বিডি নিউজ টিভি ২৪.কম: মোঃ রিয়াদুল ইসলাম (আফজাল) ঢাকা: সংবিধান প্রণেতা ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, ‘খালেদা জিয়াকে  হাসপাতালে নেয়া উচিৎ এবং চিকিৎসা দেয়া প্রয়োজন।  সংবিধানে উল্লেখ আছে,  কেউ অসুস্থ হলে তার চিকিৎসা দেয়া উচিৎ।  সরকারের ভুলে যাওয়া উচিৎ নয় আমরা সভ্য সমাজে বাস করি।’ এছাড়া, কারাগারে আদালত বসানোর বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমি আদালতে গেলে বলব এটা সংবিধান সম্মত না। কোর্ট বিচার করবে এটা আসলেই সংবিধান সম্মত কি না।’
মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে গণফোরামের উদ্যোগে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।  মূলত সাম্প্রতিক সময়ে ধরপাকড় নিয়ে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। এতে তিনি আরও বলেন, ‘যেভাবে ধরপাকড় হচ্ছে এটা নিয়ে উদ্বেগের কারণ আছে। কাউকে গ্রেফতার করতে হলে ওয়ারেন্টসহ ইউনিফর্ম পরে আসতে হবে। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আদালতে হাজির করতে হবে। যেন সে জামিন চাইতে পারে। এখন যেভাবে সাদা পোশাকে ধরা হচ্ছে সেটা সংবিধান সম্মত নয়, আইনের লঙ্ঘন।
বিশেষ কারণে দুই একবার সাদা পোশাকে গ্রেফতার করা যেতে পারে। তবে এটা এখন নিয়মিত করা হচ্ছে।  কারো অপরাধ থাকলে তাকে আইনের আওতায় আনতে হবে। তাও সংবিধানে স্পষ্ট করে উল্লেখ আছে কীভাবে আইনের আওতায় আনতে হবে। এখন যা হচ্ছে সরকার তা করতে পারে না।’ তিনি বলেন, ‘আমরা বে আইনি শাসনে চলে যাচ্ছি। সরকারকে সতর্ক থাকতে হবে। সাবধান হতে হবে। সমস্যার সমাধান করতে হবে। দ্রুত ধরপাকড় বন্ধ করা হোক। ক্ষমতার প্রয়োগ হবে আইন ও সংবিধানের ভিত্তিতে।’
ড. কামাল বলেন,  ‘নির্বাচনকে সামনে রেখে স্বাভাবিক পরিবেশ নেই। আমি আগে বলেছিলাম নির্বাচনটা আদৌ হবে কি না। আসলে নির্বাচনটা হোক। সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য পরিবেশ দরকার। কিন্তু এখন ভয়ভীতির আশঙ্কা তৈরী হয়েছে।’
জাতীয় ঐক্য পসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন ,‘২২ শে সেপ্টেম্বর সোহরাওয়ার্দীতে সমাবেশের অনুমতি দেয়নি। একই দিন মহানগর নাট্যমঞ্চে অনুমতি দেয়া হয়েছে। সোহরাওয়ার্দীতে সরকারের সবাই সমাবেশ করতে পারে অথচ বিরোধীরা চাইলেই সঙ্গে সঙ্গে না করে দেয়া হয়। এটা বৈষম্য। এটা সংবিধানের ১৬ আনা পরিপন্থী। ’

 জনসভা নিয়ে বিএনপিতে সাজ সাজ রব, ব্যাপক উদ্দীপনা 

ঢাকা : ১ সেপ্টেম্বর শনিবার বিএনপির ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে রাজপথে নামছে দলটি। এদিন রাজধানীতে ব্যাপক শোডাউন করতে ইতোমধ্যে সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা তৈরি হয়েছে। সর্বত্র সাজ সাজ রব দেখা দিয়েছে। বিএনপি নেতাকর্মীরা সকাল থেকেই দলীয় কার্যালয়ের সামনে জড়ো হবেন। শুধু রাজধানীই নয়,

ট্রাফিক সচেতনতা মুলক কর্মসুচি


সাংবাদিক রিয়াদুল ইসলাম (আফজাল)
ডেমরা ট্রাফিক জোন ট্রাফিক পূর্ব বিভাগ ডি এম
পি ঢাকা
ফুট ওভার ব্রিজ হেলমেট ব্যবহার এবং সতর্কভাবে চলাচল করার জন্য মূল্যবান আলোচনা করেন জনাবা এসি নাজমুন ও সাইফুল সাহেব । উপস্থিত ছিলেন জনাব টি আই মন্জু ও সাইদুল সাহেব এবং সার্জেন্ট ও ট্রাফিক পুলিশ

বাংলাদেশকে ভাল বাসুন

আমাদের জন্মভূমির নাম মাতৃভূমির নাম আমার মায়ের দেশের নাম বাংলাদেশ তাই আমি বাংলাদেশকে ভালো বাসি 

নিজ দেশে ফিরতে সবার সহযোগিতা চাই: রোহিঙ্গা নেতারা

কক্সবাজার : নিরাপদ প্রত্যাবাসনের দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন রোহিঙ্গারা। কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং ও বালুখালিসহ বিভিন্ন ক্যাম্পে বিক্ষোভ করেন তারা।

শনিবার সকাল ৯টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত রোহিঙ্গারা বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেন। এ সময় রোহিঙ্গা নেতারা বক্তব্য রাখেন।

রোহিঙ্গা নেতারা বলেন, আমরা নিজ দেশে ফিরে যেতে চাই। আন্তর্জাতিক মহলসহ সবার সহযোগিতা চাই।

ফেসবুকে শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানার নামে ভুয়া অ্যাকাউন্ট

ঢাকা : সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিশেষ করে ফেসবুক এবং টুইটারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ রেহানা, প্রধানমন্ত্রীর কন্যা সায়মা হোসেন ওয়াজেদ-এর কোন অফিসিয়াল বা ব্যক্তিগত আইডি নেই। আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে  শনিবার বলা হয়, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর

শহীদ রমিজউদ্দিন কলেজের পাশে আন্ডারপাসের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

 

shohel hossain/bdnewstv24/12 August 2018

রাজধানীর কুর্মিটোলায় শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজ (এসআরসিসি) সংলগ্ন বিমানবন্দর সড়কে পথচারী আন্ডারপাস নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ সকাল ১০টায় বিমানবন্দর সড়কে বীরসপ্তক ক্রসিং পয়েন্টের কাছে এই প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচটি ইমাম, সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদসহ বেসামরিক ও সামরিক শীর্ষ কর্মকর্তারা।

গত ২৯ জুলাই জাবালে নূর পরিবহনের বাসচাপায় রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজের দুই শিক্ষার্থী নিহত হন। এ ঘটনার পর নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনে নামেন শিক্ষার্থীরা। এর পর তাদের দাবি পূরণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। এরই মধ্যে ওই কলেজশিক্ষার্থীদের জন্য পাঁচটি বিশেষ বাস দিয়েছেন শেখ হাসিনা। এ ছাড়া সরকারের পক্ষ থেকে নিহত দুজনের পরিবারকে ২০ লাখ টাকা করে দেয়া হয়েছে। আর জাবালে নূর পরিবহনের রুট পারমিট বাতিল করা হয়েছে।

বড়পুকুরিয়ায় ১ লাখ ৪২ হাজার টন কয়লা গায়েব, এমডি-জিএম প্রত্যাহার

বিডি নিউজ টিভি ২৪ ডট কম: মোঃ রুবেল মোল্লা :দিনাজপুর: দিনাজপুর বড়পুকুরিয়া কয়লা খনিতে তুঘলকি কারবার চলছে। যে যার মতো কয়লা বিক্রি’র টাকা আত্মসাৎ আর দুর্নীতির মহোৎসব চালিয়ে যাচ্ছে। খনি থেকে উত্তোলনকৃত ১ লাখ ৪২ হাজার টন কয়লা ইতোমধ্যে গায়েব হয়ে গেছে। ২২৭ কোটি টাকার বর্তমান বাজার দরের কয়লা হজম করে দিয়েছে সংশ্লিষ্ট দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তারা। এই ঘটনার প্রেক্ষিতে বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানির (বিসিএমসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও একজন মহাব্যবস্থাপককে প্রত্যাহার করা হয়েছে। সেই সাথে আরও একজন মহাব্যবস্থাপক ও উপ-মহাব্যবস্থাপককে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে কয়লা খনি কোম্পানির নিয়ন্ত্রণকারী প্রতিষ্ঠান পেট্রোবাংলা কর্তৃপক্ষ। এ নিয়ে বেশ তোলপাড়ও চলছে।

ঘটনা তদন্তে পেট্রোবাংলার পরিচালক (অপারেশন এন্ড মাইনস) মো. কামরুজ্জামানকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। পেট্রোবাংলার পরিচালক (প্ল্যানিং) আইয়ুব খান চৌধুরীকে বাড়তি দায়িত্ব হিসেবে বিসিএমসিএল’র ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্ব পালন করতে বলা হয়েছে। কয়লা খনি কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাবিব উদ্দিন আহমদকে অফিসার অন স্পেশাল ডিউটি (ওএসডি) করে পেট্রোবাংলায় ফিরিয়ে আনা হয়েছে। গত বছর এপ্রিল মাসে তাকে এই দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল। কোম্পানি সেক্রেটারি ও মহাব্যবস্থাপক আবুল কাশেম প্রধানিয়াকে তাৎক্ষণিক বদলি (স্ট্যান্ড রিলিজ) করে সিরাজগঞ্জে পশ্চিমাঞ্চল গ্যাস কোম্পানিতে পাঠানো হয়েছে। আর সাময়িক বরখাস্তকৃত কর্মকর্তারা হলেন- খনি’র মহাব্যবস্থাপক (মাইন অপারেশন) আবু তাহের মো. নূর-উজ-জামান এবং উপ-মহাব্যবস্থাপক (স্টোর) খালেদুল ইসলাম।

বিসিএমসিএল-এর নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, দায়িত্বে অবহেলার জন্য এই চারজনের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। নথিপত্রের হিসাব অনুযায়ী খনি থেকে উত্তোলিত কয়লা যেখানে স্তুপ করে রাখা হয়, সেখানে মজুদ ছিল ১ লাখ ৪২ হাজার টন কয়লা। অথচ সেখানে এখন এক টন কয়লাও নেই বলে জানান কোম্পানির আরেকজন মহাব্যবস্থাপক। খনি কোম্পানির সূত্রে জানা গেছে, প্রতি টন কয়লার বর্তমান বাজার মূল্য ১৬ হাজার টাকা। সেই হিসাবে, হদিস নেই ২২৭ কোটি টাকার কয়লার।

বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির সংলগ্ন কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রের চিফ ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল হাকিম জানান, বিদ্যুৎ কেন্দ্রটিকে চালাতে প্রতিদিন গড়ে সাড়ে চার হাজার টন কয়লা প্রয়োজন হয়। কিন্তু কয়লা সংকটের কারণে ৫২৫ মেগাওয়াট ক্ষমতার বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রটিতে ১২৫ মেগাওয়াট ক্ষমতার দু’টি ইউনিট ইতিমধ্যে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। ৫২৫ মেগাওয়াট ক্ষমতার বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রটিতে এখন আংশিকভাবে বিদ্যুৎ উৎপাদন চলছে। অপর ২৭৫ মেগাওয়াট ক্ষমতার কেন্দ্রটিও পূর্ণ শক্তিতে চালানো সম্ভব হচ্ছে না।
বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (বিপিডিবি) সদস্য আবু সাঈদ কয়লা খনি এলাকা গত সোমবার পরিদর্শনে যাওয়ার পর কয়লা গায়েব হওয়ার কথা প্রথমে ধরা পরে।

সমুদ্র বন্দরগুলোকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত

ঢাকা: মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের উপর কম সক্রিয় থাকায় দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা কমে গেছে। তবে ৩ থেকে ৪ দিন পর বৃষ্টিপাত বাড়তে পারে। এজন্য চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরগুলোকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। শনিবার আবহাওয়ার এক সতর্ক বার্তায় এ কথা বলা হয়।

এতে বলা হয়, উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি এসে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে তাদের গভীর সাগরে বিচরণ না করতে বলা হয়েছে।

উত্তরপশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হয়েছে। এটি ঘণীভূত হতে পারে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালার সৃষ্টি হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর, বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরসমূহের উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

এদিকে মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের উপর কম সক্রিয় থাকায় দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা কমে গেছে। আগামী ৭২ ঘণ্টায় উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন হবে না বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুছ। তিনি জানান, ৩ থেকে ৪ দিন পর বৃষ্টিপাত বাড়তে পারে।

সকাল ৯টা থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, রংপুর, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী, ময়মনসিংহ, ঢাকা, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়া ও বিজলী চমকানোসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী বর্ষণ হতে পারে। এছাড়া সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে।

শনিবার সকাল ৬ টায় ঢাকায় বাতাসের আপেক্ষিক আর্দ্রতা ছিল ৯৩ শতাংশ। আগামীকাল ঢাকায় সূর্যোদয় ভোর ৫টা ১৭ মিনিটে। পূর্বাভাসে আরও বলা হয়, মৌসুমী বায়ুর অক্ষ রাজস্থান, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের উপর কম সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে দুর্বল থেকে মাঝারি অবস্থায় বিরাজ করছে।

১৯